‘বিএনপি নির্বাচনে সেনাবাহিনী চায়, কিন্তু হাসপাতালের ওপর আস্থা নেই।’

আজকের নারায়নগঞ্জঃ বিএনপি নির্বাচনে অংশ না নিলেও নির্বাচন থেমে থাকবে না বলে মন্তব্য করেছেন আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক ওবায়দুল কাদের।
মঙ্গলবার (১৯ জুন) সকালে ধানমন্ডির আওয়ামী লীগের সভাপতির কার্যালয়ে তিনি এ মন্তব্য করেন। তিনি বলেন, ‘বিএনপি নির্বাচনে সেনাবাহিনী চায়, কিন্তু সেনাবাহিনীর হাসপাতালের ওপর তাদের কোনো আস্থা নেই।’

ওবায়দুল কাদের বলেন, ‘খালেদা জিয়ার সিএমএইচ হাসপাতালে ভর্তি প্রসঙ্গে সেতুমন্ত্রী বলেন, ‘তারা নির্বাচনে সেনাবাহিনী চায়। কিন্তু সেনাবাহিনীর হাসপাতালে তাদের অনীহা। সিএমএইচ হাসপাতালের চেয়ে ভালো হাসপাতাল আছে বলে আমার জানা নাই।’

সেতুমন্ত্রী বলেন, ‘বিএনপির তো আমাদের ওপর আস্থা রাখতে হবে। তার আন্দোলনও করবে পাশাপাশি নির্বাচনেও অংশগ্রহণও করবে। ৫ জানুয়ারি অংশ নেয়নি এজন্য সরকার দায়ী নয়। তাদের ভুলের জন্য নির্বাচন থেমে থাকবে না। এটার জন্য সরকার বা আওয়ামী লীগ দায়ী নয়।’

এসময় তিনি বলেন, ‘বিএনপি নির্বাচনে আসবে কিনা সেটা তাদের ব্যাপার। এটা তাদের গণতান্ত্রিক অধিকার। এটা সুযোগ না।’

তিনি বলেন, ‘বিএনপির দেশের জনগণের প্রতি আস্থা নাই বলেই বিদেশ গিয়ে কূটনৈতিকদের কাছে নালিশ করছে। তারা নির্বাচনকে কেন্দ্র করে সরকারের বিরুদ্ধে ষড়যন্ত্র করছে, কিন্তু কোনো ষড়যন্ত্রেই কাজ হবে না। দেশের জনগণ তা রুখে দেবে। বিএনপি নেতারা কে কী করছে তা সব জানি।’

এ সময় আরও উপস্থিত ছিলেন দলের যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক জাহাঙ্গীর কবির নানক, ডা. দিপু মনি, আব্দুর রহমান, সাংগঠনিক সম্পাদক আহমদ হোসেন, এ কে এম এনামুল হক শামীম, মুক্তিযুদ্ধ বিষয়ক সম্পাদক মৃণাল কান্তি দাস, উপ দপ্তর সম্পাদক ব্যারিস্টার বিপ্লব বড়ুয়া ও ঢাকা মহানগর আওয়ামী লীগের নেতারা।