শেষ মুহূর্তের গোলে শ্বাসরুদ্ধকর জয় ইংল্যান্ডের

 

ক্রীড়া ডেস্ক :  বিশ্বকাপে আফ্রিকান দলগুলোর বিপক্ষে হারের কোনো রেকর্ড নেই ইংল্যান্ডের। সেই রেকর্ড অক্ষুন্ন রাখল হ্যারি কেনের ইংল্যান্ড।

মঙ্গলবার তিউনিশিয়াকে ২-১ গোলে রাশিয়া বিশ্বকাপের যাত্রা শুরু করেছে প্রাক্তন বিশ্ব চ্যাম্পিয়নরা। ইংল্যান্ডের হয়ে জোড়া গোল করেছেন অধিনায়ক হ্যারি কেন। আর তিউনেশিয়ার হয়ে পেনাল্টি থেকে গোল করেন ফেরঝানি সাচ্চি। শেষ মুহূর্তের গোলে ইংল্যান্ড প্রত্যাশিত জয় পেয়েছে।

নির্ধারিত ৯০ মিনিটের লড়াই ১-১ গোলে ড্র ছিল। ৯১ মিনিটে কর্ণার কিক থেকে পাওয়া বলে হেড দিয়ে গোল করে দলের জয় নিশ্চিত করেন কেন। তাতেই উল্লাসে মেতে উঠে ইংরেজ সমর্থকরা। অন্তিম মুহূর্তের গোলে শ্বাসরুদ্ধকর জয় পেয়েছে ইংল্যান্ড।

৯১ মিনিটে কর্ণার কিক পায় ইংল্যান্ড। ট্রিপারের নেওয়া কর্ণার কিক থেকে হেড করেন মাগুয়েরে। বামপাশে কোনায় একাই দাঁড়িয়ে ছিলেন কেন। পুরোপুরি আনমার্ক। ঠান্ডা মাথায় নিখুঁত হেডে বল জালে পাঠান ইংলিশ অধিনায়ক। তিউনিশিয়ার গোল রক্ষক বেন মুস্তফা বল ঠেকাতে লাফ দিয়েছিলেন। কিন্তু সব কিছু হযবরল হয়ে যায় কেনের দুর্দান্ত ফিনিশিংয়ে।

ম্যাচের শুরু থেকেই দুর্দান্ত খেলে আসছিল ইংল্যান্ড। প্রতিটি ক্রস, কাট ব্যাক, বল থ্রো, নক ডাউন এবং দুর্দান্ত পাসে তিউনিশিয়ার রক্ষণ ভাগ দিশেহারা করে রাখছিল কেনের দল। প্রথমার্ধেই ১২টি শট নিয়েছিল গোলের উদ্দেশ্যে। এর মধ্যে ৬টি ছিল অন টার্গেট।

ম্যাচের ১১ মিনিটেই লিড নেয় তারা। ইয়ং এর ভাসানো বলে ডি বক্সের ভেতরে হেড দেন স্টোনস। গোল রক্ষক হাসেন অসাধারণ সেভ করে দলকে বাঁচিয়ে দেন। কিন্তু ডানপ্রান্তে দাঁড়িয়ে থাকা কেনের শট আর বাঁচাতে পারেননি হাসেন। গোল হজমের পর হাসেনকেও হারায় তিউনিশিয়া। কাঁধের চোটে মাঠ ছাড়েন এ গোল রক্ষক।

ম্যাচের ৩৫ মিনিটে সমতায় ফেরে পঞ্চমবারের মতো বিশ্বকাপ খেলতে আসা তিউনিশিয়া। পেনাল্টি থেকে গোল করেন ফেরঝানি সাচ্চি। বক্সের ভেতরে ফখরেডিনে বেন ইউসেফকে কনুই দিয়ে ব্লক করেন ওয়ালকার। রেফারির চোখে ধরা পড়ায় সাথে সাথে পেনাল্টি পায় তিউনিশিয়া। স্পটকিকের গোলের সুযোগটি হাতছাড়া করেননি সাচ্চি। কিন্তু শেষ পর্যন্ত হাসিটা ধরে রাখতে পারেনি।

বিশ্বকাপে এর আগে দুই দল একবার মুখোমুখি হয়েছিল। ১৯৯৮ বিশ্বকাপে সেই ম্যাচে তিউনিশিয়াকে ২-০ গোলে হারিয়েছিল ইংল্যান্ড। কেনের দল এবারও সাফল্য ধরে রাখল। ২০০৬ বিশ্বকাপের পর আবার তিউনিশিয়া বিশ্বকাপে খেলছে। এক যুগ পর বিশ্বকাপে সুযোগ পেয়ে শুরুটা ভালো করতে পারল না তাঁরা।