বিফল সুখ

– মামুন রনি

সব ফুলে ভ্রমর বসে না
প্রজাপতি পাখা মেলে স্বপ্ন ছড়ায় না সব ফুলের শোভায়
সব ফুলের বুকে পরাগ রেণুর স্পর্শ পড়ে না নবজীবনের
সব ফুল অনন্ত রসের ফল দিতে পারে না বৃক্ষ শাখায়
সব ফুল মোহিত করতে পারে না মানব হৃদয়
সৌরভে সুন্দরে সব ফুল পারে না সিক্ত করতে অন্তরাত্মা।

কিছু ফুল ফুটে যায় অজানা প্রান্তরে
সবটুকু সুবাস, সবটুকু সুন্দর, সমস্ত অন্তর্ধন দিয়ে
কিছু ফুল বিকশিত হয় পাপড়ির পেখম মেলে নিবিড় গহিনে
চারপাশ মাতিয়ে তোলে কিছু ফুল নিরালা কাননে
সবটুকু বিলিয়ে যায় কিছু ফুল বিফল প্রহরে।

তারপরও সে ফোটে, তারপরও সে মুখর থাকে নিজেতে
তারপরও সে নিজেকে মুক্ত করে অজানা আশাতে।
হায়! কে জানে বিধাতার দন্ড বিধান!
ফুল মলিন হয় ধূলার আবরণে
জর্জরিত হয় বৃষ্টি-জলের অবিরাম আঘাতে
ঝরে যায় একটি একটি করে পাপড়ি দারুণ অভিমানে
অসীম বেদনায় সৌরভহারা ক্ষত বিক্ষত পাপড়ি
লুটিয়ে পড়ে মাটির বুকে অপারগ সামর্থ্যে
শুধু উর্ধপানে মুখ তুলে তাকিয়ে থাকে অসহায় শূন্য বৃন্ত।