দিন দিন রাজনীতি কঠিন মনে হচ্ছে বলে বিদায় নিলেন কন্ঠশিল্পী মনির খান

রাজনৈতিক ডেস্ক(আজকের নারায়নগঞ্জ): বিএনপির কেন্দ্রীয় কমিটির সহ-সাংস্কৃতিক বিষয়ক সম্পাদক সংগীত শিল্পী মনির খান মনোনয়ন না পেয়ে দল থেকে পদত্যাগ করেছেন। একাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনে ঝিনাইদহ-৩ (মহেশপুর-কোটচাঁদপুর) আসন থেকে বিএনপি থেকে মনোনয়ন চেয়েছিলেন তিনি।

রোববার (৯ ডিসেম্বর) বিকেল ৫টায় জাতীয় প্রেস ক্লাবে সংবাদ সম্মেলনে পদত্যাগের আনুষ্ঠানিক ঘোষণা দেন এই সংগীত শিল্পী।

মনির খান বললেন, ‘আমি শিল্পী মানুষ, রাজনীতি করতে আর ইচ্ছে করছে না। রাজনীতির মধ্যে যে কৌশলগত দিক আছে, সেটার সঙ্গে আমি নিজেকে মানিয়ে নিতে পারছি না। মনে হচ্ছে, রাজনীতির মধ্যে সামনে যত দিন যাচ্ছে, জীবনটা অন্ধকারে চলে যাচ্ছে। এদিকে আমার ভক্তরাও চাইছেন, আমি যেন গানে ব্যস্ত হই। তাঁদের আহ্বান আর আমার সুস্থ জীবনযাপনের আকাঙ্ক্ষা থেকে রাজনীতি থেকে সরে দাঁড়িয়েছি। কাউকে অভিযোগ করতে চাই না।’

মনির খান প্রাথমিকভাবে দলের মনোনয়নের চিঠি পেয়ে জমাও দিয়েছিলেন। কিন্তু আসনটি জোটের শরিক জামায়াতকে ছেড়ে দেওয়ায় চূড়ান্ত তালিকায় ঠাঁই হয়নি তার। এরপরই পদত্যাগ করার সিদ্ধান্ত নেন তিনি।

তিনি প্রায় ১০ বছর ধরে এলাকায় বিএনপি দলীয় কার্যক্রম ও গণসংযোগ করে আসছেন।

গত শুক্রবার সন্ধ্যায় গুলশানের বিএনপি চেয়ারপারসনের কার্যালয়ে ঝিনাইদহের চারটি আসনের মধ্যে বিএনপির তিনজন প্রার্থীকে চিঠি দেয়া হলেও ঝিনাইদহ-৩ আসনে দলটির কাউকে চূড়ান্ত ঘোষণা করা হয়নি।

বিএনপি সূত্র জানায়, আসনটিতে জামায়াতের ভোট বেশি হওয়ায় বিএনপি জামায়াত ইসলামীকে ছেড়ে দিচ্ছে। এখানে ধানের শীষ প্রতীক নিয়ে নির্বাচন করবেন ঝিনাইদহ জেলা জামায়াতের সেক্রেটারি মতিয়ার রহমান।