আফলাতুন নাহার শিলু’র ৩টি কবিতা

 

১। অর্ঘ্য

ধ্রুব বিশ্বাসে হৃদয় আজ লাবণ্যময়ী
তৃষ্ণার্ত চাঁদনী আজ তীর্থযাত্রায়
প্লাবিত আলোর ছটা তোমাতে জড়াচ্ছে পূর্ণিমায়!
কাজলের মুছে যাওয়া অংশে ফাগুনের রঙের আভা
কম্পিত অন্তরে, আঁধারে অন্তিম জোনাক জ্বলার নীরবতা
হাসনাহেনার মাতাল গন্ধে স্বপ্ন ভঙ্গের নস্টালজিয়া।
অবশেষে তোমার হৃদয়ে অর্ঘ্য দিয়ে শেষের কবিতা হয়ে
বিলীন হই পুস্পবিলাসে।

২। হারানো চাবি

আমি ভালোবাসাকে সযত্নে লকারে রেখে
চাবি হারিয়ে ফেলেছি সেই কবে।
ভালোবাসাটা ক্লাসিক, লকারটা এন্টিক
রঙিন সুতোয় বোনা শিকেয় রেখেছি তুলে।
আড়ালে রেখেও এড়িয়ে যাই না কখনো
সংরক্ষিত আসনে মনোনয়ন দিয়েও আসন পায় না সে কখনো।
নশ্বর ভালোবাসার হারানো চাবিটা কী তবে তোমার হাতে প্রিয়!

৩। অবিমিশ্র প্রেম

তেল আর জল মেশে না কখনো
যদি তুমি তেল হও, আমি হবো জল,
কেউ ভেসে, কেউ ডুবে এক হয়ে রবো
কথা আর অনুভবে ভালবাসা এঁকে।

তুমি যদি হও তেল, আমি জল হবো
গোপনে মিশে যাবো মন সরোবরে,
আনন্দ সঙ্গমে স্নান করে মনের আবেগে
অন্তরে ধরা দিবো এক উদার আকাশে।