আজ সন্ধ্যায় আর্জেন্টিনার মুখোমুখি নবাগত আইসল্যান্ড

 

ক্রীড়া ডেস্ক : প্রথমবারের মতো বিশ্বকাপে এসেছে মাত্র ৩ লক্ষাধিক জনসংখ্যার দেশ আইসল্যান্ড। এসেই তারা পড়েছে আর্জেন্টিনার গ্রুপ ‘ডি’ তে। তাও আবার নিজেদের প্রথম ম্যাচেই পেয়েছে দুইবারের চ্যাম্পিয়ন ও সবশেষ আসরের ফাইনালিস্ট আর্জেন্টিনাকে।

আজ শনিবার সন্ধ্যা ৭টায় আর্জেন্টিনার মুখোমুখি হবে নবাগত আইসল্যান্ড। তবে আর্জেন্টিনার ভয়ে ভীত নয় আইসল্যান্ড। তারা তাদের স্বাভাবিক খেলাটা খেলবে। মেসিকে আটকানোর জন্যও তারা ব্যতিব্যস্ত হবে না।

শুক্রবার আইসল্যান্ডের কোচ হেইমার হালগ্রিমসন বলেন, ‘আমাদের লক্ষ্য হচ্ছে গ্রুপপর্ব পার হওয়া। আর সেটা করতে হলে আমাদেরকে দুটো ভালো দলকে পেছনে ফেলতে হবে। তাই আমাদের কাউকে ভয় পেলে চলবে না। কার মুখোমুখি হতে যাচ্ছি সেটা নিয়ে ভাবলে চলবে না।’

তবে আর্জেন্টিনাকে ফেবারিট মানতে ও সমীহ করতে ভোলেননি তিনি, ‘আমরা জানি আইসল্যান্ডকে আগামীকাল তাদের জীবনের সেরা খেলাটা খেলতে হবে। তারপরও আমি বলব আর্জেন্টিনার মতো একটি দুর্দান্ত দলের বিপক্ষে আইসল্যান্ড হয়তো হেরে যাবে। এটাই আসলে বাস্তবতা।’

আর্জেন্টিনার বিপক্ষে যখন কোনো দল মাঠে নামে, তখন তাদের টার্গেট থাকে লিওনেল মেসিকে আটকানো। তাকে বোতলবন্দি করে রাখতে পারলে ম্যাচে অন্তত হার এড়ানো সম্ভব। কিন্তু আইসল্যান্ডের কোচ সেটা করতে রাজি নন। মেসিকে নিয়ে তার পরিকল্পনা ভিন্ন, ‘আসলে মেসিকে আটকানোর মতো কোনো ম্যাজিক ফর্মুলা আমার জানা নেই। তাকে আটকানোর জন্য আসলে সবাই সব ধরণের মেথডই ব্যবহার করে। তারপরও মেসি কিন্তু গোল করেন। মেসি অসাধারণ একজন খেলোয়াড়। বিশ্বের অন্যতম সেরা। আসলে আমরা একসঙ্গে খেলতে চাই। একে অপরকে সহায়তা করে খেলতে চাই। আর আমি মনে করি আমাদের জন্য সেটাই হবে ভালো। মেসিকে আটকানোর জন্য কাউকে ব্যস্ত রাখাটা ঠিক হবে না।’

আর্জেন্টিনার পর আইসল্যান্ড তাদের দ্বিতীয় ম্যাচে ২২ জুন নাইজেরিয়ার মুখোমুখি হবে। শেষ ম্যাচে ২৬ জুন আইসল্যান্ডের প্রতিপক্ষ ক্রোয়েশিয়া।