স্বপ্নলোক

– মামুন রনি

গহিন অরণ্যে হারিয়ে যাবো একদিন
ফিরবো না আর তোমাদের নগরে
তোমাদের ইটের দেয়াল আমাকে অধীন করে রাখে,
আমি তোমাদের শহরে হেটে চলি নর্দমার বুকে পা রেখে
নাগরিক কোলাহলে ভেসে বেড়ায় স্বার্থের গন্ধ
উৎকোচের উৎকট গন্ধে আমি ক্লান্ত হয়ে ঘরে ফিরি।

আমি নিবিড় অরণ্যে মিশে যাবো একদিন,
তোমাদের উৎসবের আলোর ঝলকানি থেকে দূরে
যেখানে প্রচারমুখী নির্বোধের অসহ্য হাসি নেই
যেখানে মানুষ গড়েনি বানর সমাচার
যেখানে নেই শ্রেণীবদ্ধ মানব সিঁড়ি
যেখানে নেই খাবলে খাওয়া নারী-দেহের বীভৎস চিৎকার
যেখানে নেই সুদকষার অংকে সততার ভাগাভাগি
যেখানে এখনও কলঙ্কিত ইতিহাস খবর হয়ে আসে না
যেখানে সমাজ নির্ধারণ করে না খাদ্যের ভাগ
আমি সেই সবুজ অরণ্যে যাবো।

আমি সেই অরণ্যে আবাস গড়বো একদিন
যেখানে শ্রমের মূল্যে অধিকার আসে
যেখা‌নে প্রকৃতির কোলে বিশ্ব দোলে
যেখানে ফুল ফোটে আপন মনে
যেখানে সুর ছোটে প্রাণের ভাষায় আপন গানে
যেখানে নীরব ভাঙে পাখির তানে
যেখানে কান্তি খেলে দু`চোখ ভরে
সত্যিই আমি একদিন চলে যাবো সে অরণ্যে।