সোনারগাঁয়ের ৬টি মসজিদে ৪৪ লাখ টাকা দিলেন এমপি খোকা

নারায়ণগঞ্জ-৩ (সোনারগাঁ) আসনের সংসদ সদস্য ও জাতীয় পার্টির সিনিয়র যুগ্ম মহাসচিব লিয়াকত হোসেন খোকা উপজেলার ৬টি জামে মসজিদের উন্নয়ণের জন্য ৪৪ লাখ ১৪ হাজার ২৬৪ টাকা অনুদান দিয়েছেন।

শনিবার বিকেলে উপজেলা পরিষদ সভাকক্ষে ওলামায়ে কেরাম ও মসজিদ কমিটির সদস্যদের সঙ্গে মতবিনিময় সভায় তিনি অনুদানের বিষয়টি নিশ্চিত করেন এবং আসন্ন ঈদুল ফিতরের পূর্বেই সকল মসজিদের উন্নয়ণের কাজ সম্পন্ন করার জন্য সংশ্লিষ্ট ঠিকাদারকে জোড়ালোভাবে নির্দেশ দেন।

এসময় এমপি লিয়াকত হোসেন খোকা বলেন, জনগণ সেবা পাওয়ার জন্য একজন সাধারণ মানুষকে ভোট দিয়ে জনপ্রতিনিধি নির্বাচিত করে। কিন্তু জনপ্রতিনিধি হওয়ার পর কেউ কেউ জনগণের সেবার বিষয়টিই ভুলে যায়। ক্ষমতার অপব্যবহার করে নিজের স্বার্থ উদ্ধারে জনগণের রক্তচুষতে শুরু করে।

তিনি বলেন, বিগত দিনে যারা সোনারগাঁয়ের এমপি হয়েছিলেন তারা নির্বাচনের আগে উপজেলার প্রত্যন্ত অঞ্চলে গিয়ে মানুষের কাছে বিভিন্ন উন্নয়ণের ওয়াদা করেছেন। কিন্তু এমপি হওয়ার পর তারা সেই ওয়াদা রক্ষা করেননি বলে মানুষের মুখে মুখে শুনি। অথচ আমি খোকা নির্বাচনের আগে জনগণের কাছে কোন উন্নয়ণের ওয়াদা করিনি।

তাই এমপি হওয়ার পর আমি ইচ্ছা করলে বিগত সাড়ে চার বছর যাবত ক্ষমতা উপভোগ করতে পারতাম। কিন্তু আমি তা করিনি। কেননা আমি বিশ^াস করি যে, প্রতিটি মানুষ কেয়ামতের ময়দানে নিজ নিজ দায়িত্ব সম্পর্কে জিজ্ঞাসিত হবে।

আর আল্লাহ তা’য়ালা আমাকে সোনারগাঁবাসীর খেদমতের দায়িত্ব দিয়েছেন। তাই এই দায়িত্বে অবহেলা করে আমি কিয়ামতের ময়দানে আসামীর কাঠগড়ায় দাঁড়াতে চাই না। বরং সাধ্য অনুযায়ী সোনারগাঁবাসীর সেবা করে আল্লাহর সন্তুষ্টি অর্জন করতে চাই।

এজন্য দিনরাত কঠোর পরিশ্রম করে সোনারগাঁয়ের কোথায় কি কি দরকার সেগুলোর তালিকা তৈরী করেছি এবং তা বাস্তবায়নের জন্য কাজ করে যাচ্ছি।
মতবিনিময় সভায় উপস্থিত ছিলেন- উপজেলা প্রকৌশলী আলী হায়দার খাঁন, মাওলানা সানাউল্লাহ নূরী, মাওলানা জাহাঙ্গির হোসেন, মাজহারুল ইসলাম মানিক, আলী আকবর, আবুল কাশেম মেম্বারসহ ওলামায়ে কেরামগণ ও বিভিন্ন মসজিদ কমিটির সদস্যবৃন্দ।

অনুদান প্রাপ্ত মসজিদগুলোর মধ্যে রয়েছে- আনন্দবাজার বাইতুল কারিম জামে মসজিদ (১০ লাখ ১৬ হাজার ১শত ৮৫ টাকা), হোসেনপুর জামে মসজিদ (৫ লাখ ৬৭ হাজার ৩শত ৩৮ টাকা), বাড়ি মজলিশ জামে মসজিদ (৭ লাখ) টাকা, নানাখী মৌলভীবাড়ি জামে মসজিদ (৫ লাখ ৩০ হাজার ৭শত ৩৮ টাকা), হাবিবপুর জামে মসজিদ (৮ লাখ টাকা) ও হযরতপুর জামে মসজিদ (৮ লাখ ৩ টাকা)। সোনারগাঁ উপজেলা ছাত্রলীগের সভাপতি হাসান রাশেদের এএসবি এন্টারপ্রাইজ টেন্ডারের মাধ্যমে এই উন্নয়ণকাজের দায়িত্ব পেয়েছে।