না‘গঞ্জে ২০৩ পূজাঁমন্ডপে ৩ হাজার টাকা করে অনুদান জেলা পরিষদের

আজকের নারায়নগঞ্জ ডেস্ক: জেলা পরিষদ থেকে শারদীয় দূর্গাপূজা উপলক্ষে জেলার পূজা মন্ডপের দায়িত্বশীলদের হাতে ৩ হাজার টাকা করে চেক প্রদান করা হয়। বৃহস্পতিবার (১ নভেম্বর) দুপুরে জেলা পরিষদ কার্যালয়ে শারদীয় দূর্গাপূজা উপলক্ষে পূজা মন্ডপের অনূকলে তিনদিন ব্যাপি  ধারাবাহিক চেক বিতরনের অনুষ্ঠান সম্পন্ন হয়।
অনুষ্ঠানে ৩০ অক্টোবর থেকে  জেলার ২০৩ টি পূজা মন্ডপের মধ্যে রূপগঞ্জে ৪৭টি, আড়াইহাজারে ২৯টি, সোঁনারগায়ের ৩৩ টি ও বন্দরের ২৫ পূজা মন্ডপের দায়িত্বশীলদের চেক দেওয়ার প্রতিশ্রুতি দেওয়া হয়। সদরের ৬৮টি পূজা মন্ডপের চেক দেওয়া হয়।
নগরকানপুর সিদ্ধি গোপাল আখড়া মন্দিরের কমিটি সদস্য রিমাইদে বলেন, আমাদের মন্দিরে ৬-৭ লক্ষ টাকা অর্থ ব্যয় হয়েছে। তবে এখানের এই অর্থের পরিমান কম হলেও এটা সরকার থেকে আমাদের আনন্দে একটা শুভেচ্ছা। মন্দিরে অনুদান নয়, এটা সরকারের শুভেচ্ছো। আমাদের খুশিতে জেলা পরিষদ ভাগিদার হচ্ছে।
ধর্মগঞ্জ পাকাপুল সত্যগোপাল জিয়োবিগ্রহ মন্দিরের রঞ্জিত চন্দ্র দাস বলেন, পূজার বিদ্যুৎ খরচের জন্য মূলত এই অর্থ প্রদান করে। অর্থটা বড় কথা নয়, আমাদের মন্দিরটা এর মাধ্যমে সরকারের তালিকায় এটায় বড় কথা। মন্দিরের স্থায়িত্বে একটা নিশ্চয়তা আছে।
সদর উপজেলা পূজা উদযাপন কমিটির সদস্য দিলীপ কুমার মন্ডল বলেন, জেলা পরিষদ আমাদের এভাবে অর্থ প্রদান করে আমাদের খুশি বাড়িয়ে দিয়েছে। সরকার আমাদের অনুদানের মাধ্যমে শুভেচ্ছা প্রদান করেছে। আশা করছি আগামী বছর, পরিবর্তনীয় বাজারের কথা বিবেচনা করে কিছুটা বাড়িয়ে দিবেন।
অনুষ্ঠানে প্রধান নির্বাহী কর্মকর্তা সুব্রত পাল বলেন, আমি জেলা পরিষদে কিছু দিন আগেই দায়িত্ব গ্রহন করেছি। কিন্তু জেলা পরিষদ সবসময় উন্নয়নমূলক কাজ করে থাকে। পুরো জেলাতেই আমরা উন্নয়ন মূলক কাজ করে থাকি। ধর্মীয় অনুষ্ঠান পরিচালনার জন্য আমরা অনুদান প্রদান করে থাকি। হিন্দুদের সবচেয়ে বড় ধর্মীয় উৎসব দূর্গা পূজা। তাই জেলার সকল মন্দিরে স্বল্প পরিসরে হলেও অনুদান প্রদান করছি। আগামীবছর এই অনুদানের পরিমান বাড়িয়ে দেওয়ার জন্য চেষ্টা করব।
এ সময় অনুষ্ঠানে জেলা পরিষদের প্রধান নির্বাহী কর্মকর্তা সুব্রত পালের সভাপতিত্বে, এ কে এম রাশেদুজ্জামানের সঞ্চালনায় অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন জেলা পরিষদের চেয়ারম্যান ও মহানগর আওয়ামীলীগের সভাপতি আনোয়ার হোসেন ও জেলা পরিষদ সদস্য গোলাম মোস্তফা।