ঐক্যফ্রন্টের সাথে সংলাপে বসবে আ‘লীগ- জানালেন ওবায়দুল কাদের

রাজনৈতিক ডেস্ক(আজকের নারায়নগঞ্জ): জাতীয় ঐক্যফ্রন্টের সঙ্গে সংলাপে বসবে আওয়ামী লীগ। শেখ হাসিনার দরজা কারও জন্য বন্ধ নয়, সবার জন্য খোলা। বললেন আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক এবং সড়ক পরিবহন ও সেতুমন্ত্রী ওবায়দুল কাদের।
তিনি বলেন, সংলাপে আওয়ামী লীগের নেতৃত্ব দেবেন দলীয় সভানেত্রী শেখ হাসিনা। তবে এ সংলাপ কবে হবে তা জাতীয় ঐক্যফ্রন্টকে জানিয়ে দেয়া হবে।
আজ সোমবার বিকেলে আওয়ামী লীগ সভাপতির ধানমন্ডি কার্যালয়ে সংবাদ সম্মেলনে তিনি এ কথা বলেন।
কাদের বলেন, জাতীয় ঐক্যফ্রন্টের নেতা ড. কামাল হোসেনের চিঠি গ্রহণ করেছেন প্রধানমন্ত্রী। শিগগিরই সংলাপের তারিখ, স্থান, সময় জানানো হবে।
জাতীয় ঐক্যফ্রন্টের চিঠির বিষয়ে ওবায়দুল কাদের বলেন, অবাধ, সুষ্ঠু, নিরপেক্ষ ও সকলের অংশগ্রহণমূলক নির্বাচন অনুষ্ঠানের লক্ষ্যে ঐক্যফ্রন্টের পক্ষ থেকে আওয়ামী লীগের সাথে অর্থবহ সংলাপ অনুষ্ঠানের জন্য চিঠি পাঠানো হয়। যে চিঠি দিয়েছেন তার ভেতরে কী আছে সেটা ইতোমধ্যেই পত্র-পত্রিকায় প্রকাশিত হয়েছে।
চিঠির সাথে সাত দফা প্রস্তাব ও ১১টি লক্ষ্য সংযুক্ত করে দেয়া হয়েছে জানিয়ে তিনি বলেন, আমরা কোনও পূর্বশর্ত দেবো না। আমরা কারো চাপের মুখে নতি স্বীকার করিনি। আমাদের পক্ষ থেকে আমরা কাউকে সংলাপে ডাকিনি। তবে তারা (ঐক্যফ্রন্ট নেতারা) সংলাপ করতে চান। সংলাপের দরজা প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা বন্ধ করে দিতে চান না। তিনি সেই কথাই বলেছেন।
তিনি আরও বলেন, সোমবার মন্ত্রিসভার বৈঠক ছিল। বৈঠকের পর প্রধানমন্ত্রী উপস্থিত দলীয় সদস্যদের সঙ্গে আলোচনা করে মতামত জানতে চান। আলোচনার পর সর্বসম্মত সিদ্ধান্ত হয় যে ঐক্যফ্রন্টের সঙ্গে সংলাপ করা হবে।
কাদের বলেন, নির্বাচনের তফসিল ঘোষণার আগেই সংলাপ করা হবে।
রোববার ঐক্যফ্রন্টের দুই নেতা জগলুল হায়দার ও এএইচএম শফিক উল্যাহ আওয়ামী লীগ সভানেত্রীর ধানমণ্ডির কার্যালয়ে গিয়ে চিঠি পৌঁছে দেন। আওয়ামী লীগের দপ্তর সম্পাদক আব্দুস সোবহান গোলাপ চিঠি দুটি গ্রহণ করেন।
প্রধানমন্ত্রীকে পাঠানো চিঠিতে স্বাক্ষর করেন ড. কামাল হোসেন, অন্যদিকে ওবায়দুল কাদেরকে পাঠানো চিঠিতে স্বাক্ষর করেন গণফোরামের সাধারণ সম্পাদক মোস্তফা মহসিন মন্টু।
চি‌ঠি পাওয়ার ঠিক এক‌দিন পর ঐক্যফ‌ন্টের স‌ঙ্গে সংলাপ কর‌তে সম্মত হ‌য়ে‌ছে আওয়ামী লীগ। যা দে‌শের রাজনী‌তির মা‌ঠে ইতিবাচক প্রভাব ফেল‌বে ব‌লে ম‌নে ক‌রেন ওবায়দুল কা‌দের।
সংবাদ সম্মলনে উপস্থিত ছিলেন যুগ্ম-সাধারণ সম্পাদক ডা. দীপু মণি, দপ্তর সম্পাদক ড. আবদুস সোবহান গোলাপ, সাংগঠনিক সম্পাদক আহমদ হোসেন, বাহাউদ্দিন নাসিম, প্রচার সম্পাদক হাছান মাহমুদ, সংস্কৃতিক সম্পাদক অসীম কুমার উকিল প্রমুখ।