খোল এ রবীন্দ্রনাথ: শিল্পী আশিকুর রহমানের অনুপম প্রয়াস

– রফিক সুলায়মান

আশিকুর রহমান দু’জন। একজন ফেসবুকের, অন্যজন সঙ্গীতের। ফেসবুকের আশিকুর রহমানকে সঙ্গীতের আশিকুর রহমানের সাথে মেলানো গেল না কিছুতেই। কিছুদিন আগে দীপনপুরে ওর সিডি লঞ্চিংয়ে ছিলাম, আজ যুক্ত ছিলাম ওর একটি ভিন্নধারার আয়োজনের সঙ্গে। আমি ৩/৪ বছর ধরেই এই প্রজন্মের শিল্পীদের গাওয়া রবীন্দ্র সঙ্গীত শুনছি। ঘুরেফিরে শুনছি। আজ মনে হলো হৃদয়ের গভীরে আমার অজ্ঞাত যে ক্ষুধা, সেই ক্ষুধার প্রশমন হলো আংশিক হলেও।

আশিকুরের পরিবেশনা ভিন্নতরো। একেবারেই অন্যরকম আয়োজন। খোল বাদ্যযন্ত্রটির ব্যবহার আছে গুরুদেবের যেসব গানে সেখান থেকে ১৯টি গান নির্বাচন করে পরিবেশন করলো সে। প্রেম, স্বদেশ, ঋতু ইত্যাদি পর্যায়ের গান। খোল বাজিয়েছেন স্বদীপকুমার। এস্রাজে অসিত দা আর কিবোর্ডে বিনোদ রায়। সঞ্চালনায় নির্ঝর চৌধুরী।

আশিকুরকে শুভেচ্ছা জানাতে এসে শিল্পী আব্দুল ওয়াদুদ জানালেন এরকম একটি আয়োজন বিশ্বে প্রথম। গুরুদেবের কীর্তন নিয়ে অনুষ্ঠান হয়েছে। লোক গান নিয়ে হয়েছে। শুধু খোল যন্ত্রের গান নিয়ে কোন আয়োজন হতে পারে এর আগে কেউ ভাবেই নি।

তপন মাহমুদ জানালেন, আশিকুর রহমান কাউকে অনুকরণ করে গায় না। খোলা গলা, স্পষ্ট উচ্চারণ আর হৃদয়গ্রাহী পরিবেশনা ওর বৈশিষ্ট্য। অন্যতম আয়োজক ফারুক ভাইকে ধন্যবাদ। খুব নিপুণ একটি অনুষ্ঠান উপহার দিয়েছেন আজ।