ফতুল্লায় সরকারের উন্নয়ন ফিরিস্তি তুলে ধরার কার্যক্রম উদ্বোধন

স্টাফ রিপোর্টার(আজকের নারায়নগঞ্জ):  দেশের বর্তমান প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার সরকার সারা দেশে এবং স্থানীয় সাংসদ শামীম ওসমান তাঁর নির্বাচনী এলাকায় বিগত ১০ বছরে যেসকল উন্নয়ন সম্পন্ন করেছেন এবং যেগুলো চলামান রয়েছে, তা সাধারণ জনগনের সামনে তুলে ধরার কার্যক্রম শুরু করেছে বৃহত্তর ফতুল্লা ১,২,৩ নং ওয়ার্ড আওয়ামী লীগ। যার প্রধান উদ্যোক্তা উক্ত ওয়ার্ড আওয়ামী লীগের যুগ্ম সম্পাদক রফিকুল ইসলাম প্রধান।
ফতুল্লা রেল স্টেশন বঙ্গবন্ধ চত্বরে নবনির্মিত উক্ত ওয়ার্ড আওয়ামী লীগ কার্যালয়ের সমনে প্রজক্টেরের সাহাজ্যে শুক্রবার (২৬) অক্টোবর বাদ আসরর এর কার্যক্রম শুরু করা হয়।
ফতুল্লা থানা স্বেচ্ছাসেবক লীগের সভাপতি ফরিদ আহাম্মেদ লিটন এ কার্যক্রমের উদ্বোধন করেন।
উদ্বোধনকালে সংক্ষিপ্ত বক্তব্যে ফরিদ আহম্মেদ লিটন বলেন, জননেত্রী শেখ হাসিনার সরকার বিগত ১০ বছরে সারা দেশে যে পরিমান উন্নয়ন করেছেন তা অকল্পনীয়। দেশের ইতিহাসে আর কোন সরকার এর সিকিভাগ উন্নয়ন করতে পারেনি। শেখ হাসিনা সরকারের অধীনে পদ্মা সেতু, রুপপুর পারমানবিক বিদ্যুৎ কেন্দ্র, তাপ বিদ্যুৎ কেন্দ্র, মেট্রো রেল, এলিভেটেট এক্সপ্রেস এবং কর্নফুলি ও যমুনা নদীর তলদেশ দিয়ে টানেল নির্মান কাজ চলমান রয়েছে। এসব কাজ সম্পন্ন হয়ে গেলে এক ভিন্ন বাংলাদেশ হিসেবে পরিচিতি পাবে বিশ্ব দরবারে। আর এসব উন্নয়ন কর্মকান্ডের কারনে বিশ্বের উন্নত দেশগুলো বাংলাদেশকে উন্নয়নের রোল মডেল বলে আখ্যা দিয়েছেন। অতএব এসব চলমান কাজ সম্পন্ন করতে হলে শেখ হাসিনার সরকারকে আবারো ক্ষমতায় আনতে হবে। আর এর জন্য তাঁর উন্নয়ন কর্মকান্ড বেশী বেশী করে এভাবে জনগনের কাছে তুলে ধরতে হবে। পরিশেষে এমন একটি সুন্দর ব্যবস্থা করায় রফিকুল ইসলাম প্রধানসহ তাঁর সহযোগী সকলকে সাধবাদ জানান।
ফরিদ আহাম্মেদ লিটন আরো বলেন, আমাদের প্রানপ্রিয় নেতা সাংসদ শামীম ওসমানও তাঁর নির্বাচনী এলাকায় বর্তমান সরকারের বিগত দুটি মেয়াদে এ পর্যন্ত ৭ হাজার ১’শ কোটি টাকার উন্নয়ন করেছেন। অনেক কাজ এখনও চলমান রয়েছে। যা কোন সরকারের আমলে কোন সাংসদ এর সিকিভাগও করতে পারেনি। সুতরাং এ উন্নয়নের ধারা বজায় রাখতে হলে আবারো শামীম ওসমানকে যেকোন মূল্যে বিজয়ী করতে হবে।
এ সময় অন্যান্যের মধ্যে উপস্থিত ছিলেন- বৃহত্তর ফতুল্লা ১,২,৩ নং ওয়ার্ড আওয়ামী লীগের যুগ্ম সম্পাদক রফিকুল ইসলাম প্রধান, সাংগঠনিক সম্পাদক সাদেকুল ইসলাম, প্রচার সম্পাদক শ্রী মিন্টু পাল, স্থানীয় আওয়ামী লীগ নেতা নুরুল ইসলাম নুরু ও ইউনিয়ন স্বেচ্ছাসেবক লীগ নেতা ফরহাদ হোসেন নিলয় প্রমূখ।