নাতির সঙ্গে কাঠাল নিয়ে তর্কে প্রান গেল নানার

 

আজকের নারায়নগঞ্জঃ গাজীপুরের শ্রীপুরে গাছ থেকে কাঁঠাল সংগ্রহের সময় নাতির সঙ্গে তর্কে করার একপর্যায়ে অসুস্থ হয়ে নানার মৃত্যু হয়েছে।
শনিবার সকালে পুলিশ নিহতের মরদেহ উদ্ধার করে ময়নাতদন্তের জন্য হাসপাতালে পাঠায়।

নিহতের নাম কদম আলী বেপারী (৫৮)। এর আগে শুক্রবার বিকেলে তাদের মধ্যে তর্ক-বিতর্ক হয়। পরে হাসপাতালে নেয়ার পথে কদম আলী বেপারী মারা যান।
মৃত কদম আলী বেপারী মাওনা ইউনিয়নের সিংগারদিঘী গ্রামের মৃত সমেদ আলী মাদবরের ছেলে। অভিযুক্ত নাজমুল হাসান (৩৫) একই গ্রামের শরাফত আলীর ছেলে। মৃত ব্যক্তি সম্পর্কে নাজমুল হাসানের নানা হয়।

মৃতের স্বজনদের বরাত দিয়ে শ্রীপুর থানা উপ-পরিদর্শক (এসআই) সৈয়দ আজিজুল হক বলেন, শুক্রবার বিকেলে গাছের দুটি কাঁঠাল সংগ্রহকে কেন্দ্র করে নানা কদম আলী বেপারীর সঙ্গে তার নাতী নাজমুল হাসানের তর্ক হয়। এতে বেশ উত্তেজিত হয়ে কদম আলী বেপারী বাড়িতে এসেই অসুস্থ হয়ে পড়েন। প্রথমে তাকে চিকিৎসার জন্য মাওনা চৌরাস্তার আল-হেরা হাসপাতাল আনা হয়। সেখানে অবস্থার অবনতি হলে তাকে উন্নত চিকিৎসার জন্য ময়মনসিংহ মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে নেয়ার পথে তার মৃত্যু হয়।
পরিবারের স্বজনদের অভিযোগ থাকায় তার মরদেহ উদ্ধার করে ময়নাতদন্তের জন্য গাজীপুর শহীদ তাজউদ্দিন আহমদ মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে পাঠানো হয়েছে। এ ঘটনায় পরবর্তী আইনগত ব্যবস্থার প্রক্রিয়াধীন রয়েছে।