1. admin@ajkernarayanganj.com : admin :
বুধবার, ২৮ ফেব্রুয়ারী ২০২৪, ০৪:৩১ পূর্বাহ্ন
সংবাদ শিরোনাম :
সোনারগাঁয়ে নবম শ্রেণির ছাত্রীকে ধর্ষণের অভিযোগে মামলা সোনারগাঁয়ে এসপির ক্ষমতায় বোন জামাতার হামলা, ভাংচুর ও প্রাণনাশের হুমকি সোনারগাঁয়ে আজিজুল ইসলাম মুকুলের নির্বাচনী মতবিনিময় সভা লোক ও কারুশিল্প ফাউন্ডেশনের পরিচালক ড. মো. আমিনুর রহমান সোনারগাঁয়ে আলী হায়দারের গনসংযোগ শুরু সোনারগাঁয়ে সনমান্দী হাসান খাঁন উচ্চ বিদ্যালয়ের পরীক্ষার্থীদের বিদায় সংবর্ধনা মাঝেরচর এম এস জি উচ্চ বিদ্যালয়ের এস সি সি পরীক্ষার্থীদের বিদায় সংবর্ধনা রিবর পাইলট বালিকা উচ্চ বিদ্যালয়ে এসএসসি পরীক্ষার্থীদের বিদায়ী সংবর্ধনা সোনারগাঁয়ে রেমিট্যান্স যোদ্ধাদের সম্মানণা প্রদান মাতৃভাষা দিবস উদযাপন উপলক্ষে প্রস্তুতিমূলক সভা

সোনারগাঁয়ে স্ত্রীর তালাকের ২০ দিন পর স্বামীর বিরুদ্ধে মামলা

আজকের নারায়নগঞ্জ ডেস্ক :
  • প্রকাশের সময় : বুধবার, ২০ ডিসেম্বর, ২০২৩
  • ৪২৬ বার পঠিত

সোনারগাঁ প্রতিনিধি: বিদেশ যাওয়ার ২০ মাস পর প্রবাসী স্বামী জানতে পারে তার স্ত্রী দুই মাসের অন্তঃসত্বা। বিষয়টি জানতে পেয়ে জরুরী ছুটি নিয়ে বাড়িতে চলে আসলে সেদিনই স্থানীয় মেম্বার ও গণ্যমান্য ব্যক্তিদের উপস্থিতিতে শালিস বৈঠকে স্ত্রী তার স্বামীকে তালাক দিয়ে সাড়ে তিন বছরের মেয়েকে রেখে চলে যান বাবার বাড়ি। তালাকের ২২ দিন পর স্ত্রী নারায়ণগঞ্জ আদালতে নারী ও শিশু নির্যাতন দমন আইনে মামলা করেন সাবেক স্বামীর বিরুদ্ধে। সে মামলায় স্বামী রাসেল ১৩ দিন হাজত বাসও করেন। এমনই ঘটনা ঘটেছে নারায়ণগঞ্জের সোনারগাঁ উপজেলার ভাটিবন্দর গ্রামে।

জানা যায়, উপজেলার পিরোজপুর ইউনিয়নের ভাটিবন্দর গ্রামের মৃত আহসান উল্লাহর ছেলে সৌদি প্রবাসী রাসেলের সঙ্গে বৈদ্যের বাজার ইউনিয়নের হাড়িয়া বৈদ্যপাড়া গ্রামের সানজিদা আক্তারের ২০১৯ সালে বিবাহ হয়। এ দম্পত্তির একটি তিন বছরের কন্যা সন্তান রয়েছে। মা অসুস্থ থাকায় প্রবাসী রাসেল তার স্ত্রীর কাছেই টাকা পাঠাতেন। তিনি ২০২১ সালের জুলাই মাসে দেশে আসার পর ওই বছরের ৪ ডিসেম্ব ফিরে যান। বিদেশ যাওয়ার ২০ মাস পর অর্থাৎ ২০২৩ সালের ৩ আগষ্ট জানতে পারেন তার স্ত্রী দুই মাসের অন্তঃসত্বা। বিষয়টি জানার একদিন পর ৪ আগষ্ট দেশে চলে আসেন। স্থানীয় মেম্বারের উপস্থিতিতে সালিশের মাধ্যমে তার স্ত্রী সানজিদা আক্তার বিদেশ ফেরার কয়েকঘন্টা পরে স্বামী রাসেলকে রেজিষ্ট্রি তালাক দেয়। বিদেশ থেকে পাঠানো রাসেলের ২১ লাখ টাকা ও স্বর্ণাঙ্কারের হিসেব না দিয়ে সাড়ে তিন বছরের কন্যাকে ফেলে বাবার বাড়ি চলে যান। তালাকের ২২ দিন পর নারায়ণগঞ্জ আদালতে নারী ও শিশু নির্যাতন মামলা করেন। মামলায় ১৩ দিন হাজতবাস করে গতসপ্তাহে রাসেল জামিনে বেরিয়ে আসেন। বর্তমানে তার সাবেক স্ত্রী ও পরিবার হুমকিতে রাসেল তার ও শিশুকন্যাকে নিয়ে নিরাপত্তাহীনতায় ভুগছেন বলে জানিয়েছেন।

রাসেলের মা নাজমা বেগম বলেন, আমি অসুস্থ থাকার সুযোগে ছেলের বউ পাশের বাড়ির ফয়সাল নামের একজনের সাথে পরকিয়ায় আসক্ত হয়। ফয়সাল আমার ছেলের বউকে নিয়ে স্থানীয় একটি ক্লিনিকে আল্ট্রাসনোগ্রাম করালে দুই মাসের অন্তঃসত্বা ধরা পড়ে। পরে আমরা বিষয়টি জানতে পেরে রিপোট সংগ্রহ করে দেখি ঘটনা সত্য। সে প্রসূতি দেখে গ্রামের মানুষ নানা কথা বললে আমার ছেলে বিদেশ থেকে চলে আসে। পরে ছেলের বউ আমার সাড়ে তিন বছরের নাতনীকে রেখে ছেলেকে সকলের সামনে স্বেচ্ছায় তালাক দিয়ে চলে যায়। তালাকের পর ছেলে ও আমার নামে মিথ্যা মামলা করে। বর্তমানে আমরা আতঙ্কে আছি।

বিচার শালিস করা স্থানীয় মেম্বার আফজাল হোসেন বলেন, মেয়ে পরকিয়ায় লিপ্ত হয়ে অন্তঃসত্বা এ বিষয়টি গ্রামের সবাই জানতে পারে। পরে ছেলে বিদেশ থেকে দেশে আসলে ওই নারী স্বেচ্ছায় তার স্বামীকে তালাক দিয়ে চলে যায়।

ভুক্তভোগী স্বামী রাসেল জানায়, এগারো বছর যাবত প্রবাসে থেকে যতো টাকা ছিল স্ত্রীর কাছে পাঠিয়েছি। সে টাকাই আমার কাল হয়েছে। বাড়িতে এখনো ভাঙ্গা ঘর। দালান করার জন্য স্ত্রীর কাছে নগদ ২১ লাখ টাকা পাঠাইছি। পরকিয়ায় কারনে স্ত্রী অন্তঃসত্বা জানতে পেরে যেদিন দেশে আসি সেদিনই সে আমাকে তালাক দেয়। আমার টাকা পয়সার কোন হিসেব না দিয়ে আমার ছোট সন্তানকে রেখে চলে যায়। পরে জানতে পারি সে আগেও কয়েকবার ভ্রƒণ হত্যা করেছে। আমি মিথ্যা মামলায় জেল খেটেছি। আমি এর সুষ্ঠু বিচার চাই।

Facebook Comments Box
এই জাতীয় আরও খবর