1. admin@ajkernarayanganj.com : admin :
বুধবার, ১৭ জুলাই ২০২৪, ০২:৩০ পূর্বাহ্ন
সংবাদ শিরোনাম :

সোনারগাঁয়ে সরকারী খাল বালু ভরাট করে দখলের অভিযোগ

আজকের নারায়নগঞ্জ ডেস্ক :
  • প্রকাশের সময় : বুধবার, ১২ জুন, ২০২৪
  • ৪৭৬ বার পঠিত

আজকের নারায়ণগঞ্জ ডেস্ক: নারায়ণগঞ্জের সোনারগাঁয়ের সনমান্দি ইউনিয়নের ইমানের কান্দি গ্রামের সরকারী খাল বালু দিয়ে ভরাট করে দখলের অভিযোগ উঠেছে স্থানীয় এক জাতীয় পার্টির নেতার বিরুদ্ধে। সনমান্দি ইউনিয়ন জাতীয় পার্টির ৭ নং ওয়ার্ড সভাপতি দেলোয়ার হোসেন এ খাল ভরাটের পর সেখানে পোল্ট্রি ফার্ম গড়ে তুলেছেন। খাল ভরাটের ফলে ওই এলাকায় জলাবদ্ধতা দেখা দিয়েছে। পানি নিষ্কাশন ব্যবস্থা বন্ধ হয়ে যাওয়ার কারনে ওই এলাকার মানুষ দূর্ভোগে পড়েছেন বলে অভিযোগ উঠে। খাল উদ্ধারে স্থানীয় প্রশাসন কোন ব্যবস্থা নিচ্ছে না বলে এলাকাবাসী জানিয়েছেন। খাল উদ্ধার না হলে মানববন্ধন, বিক্ষোভসহ কঠোর আন্দোলনের হুশিয়ারী দিয়েছেন এলাকাবাসী।

জানা যায়, উপজেলার ইমানের কান্দি গ্রামের পাশ দিয়ে বয়ে যাওয়া সরকারী খাল। এক সময় স্থানীয়রা এ খাল দিয়ে নৌকা যোগে বাড়িতে যাতায়াত করতেন। বর্তমানে এ খালের কোন অস্তিত নেই। এ খাল ভরাট করে ফেলার কারনে গাড়ি চলাচল করে সেখানে। খাল দখলের কারনে পাশ্ববর্তী সরকারী বাজেটের একটি ব্রীজও অকেজো হয়ে পড়েছে। স্থানীয় প্রভাবশালী জাপা নেতা পুলিশের সোর্স দেলোয়ার হোসেন সরকারী খাল বালু দিয়ে ভরাট করে গড়ে তোলেন পোল্ট্রি ফার্ম। এ ফার্মের মুরগীর বিষ্ঠার দূর্গন্ধে অতিষ্ঠ হয়ে পড়েন স্থানীয়রা। খালটি বালু ভরাটের ফলে ওই এলাকায় জলাবন্ধতা দেখা দিয়েছে। এতে সাধারণ মানুষ দূর্ভোগে পড়েন।

সরেজমিনে ওই এলাকায় গেলে স্থানীয়রা বলেন, ইমানের কান্দি মৌজায় এস এ ১৪৯৪, ১৪৯৫ আর এস ১৮৫৭, ১৮৮৩ দাগে সরকারী খাল। এ খালটি দেলোয়ার হোসেন প্রভাব খাটিয়ে বালু দিয়ে ভরাট করে ফেলেন। বালু ভরাটের ফলে সেখানে পানি নিষ্কাশন ব্যবস্থা বন্ধ হয়ে যাওয়ার কারনে জলাবদ্ধতা দেখা দিয়েছে। স্থানীয় কৃষকের জমিতে বৃষ্টি হলে পানি জমে ফসলের ব্যাপক ক্ষতি হয়। তাই দ্রæত খালটি উদ্ধারের জন্য স্থানীয় প্রশাসনের দৃষ্টি আকর্ষণ করেছেন।

এলাকাবাসীর অভিযোগ, বিগত ১০বছর সোনারগাঁয়ে জাতীয় পার্টির সংসদ সদস্য ছিলেন। ওই সময়ে দোলোয়ার হোসেন জাতীয় পার্টির ওয়ার্ড সভাপতির পদ দখল করে বিভিন্ন অপকর্ম করেছেন। দেলোয়ার হোসেন পুলিশের সোর্স হিসেবে কাজ করতেন। র‌্যাব, পুলিশের ভয় ভীতি দেখিয়ে মানুষকে হয়রানী করে থাকেন। এসব হয়রানীর ভয়ে কেউ তার বিরুদ্ধে মুখ খুলতে সাহস পাননি। সে সরকারী খাল দখল করে বালু ভারাট করে জলাবদ্ধতা সৃষ্টি করে সাধারণ মানুষকে ভোগান্তিতে ফেলেছেন।

ইমানের কান্দি হালিমা আক্তার বলেন, আমার বিয়ের ৩৫ বছর ধরে এ খাল দেখতাছি। এই এলাকার দেলোয়ার এ খাল ভরাট করে ফেলেছে। স্থানীয় কৃষকরা তাদের ফসলি জমিতে জলাবদ্ধতা দেখা দিয়েছে। এতে ফসলের ক্ষতি হচ্ছে।

ইমানের কান্দি গ্রামের আব্দুল মতিন বলেন, দীর্ঘদিন ধরে খালটি বালু ভরাট করে বন্ধ করে দেওয়ার কারনে আমাদের দূর্ভোগে পড়তে হয়েছে। পাশাপাশি সেখানে গড়ে তোলা পোল্ট্রি ফার্মের মুরগীর বিষ্ঠার দূর্গন্ধ আরো বেশি দূর্ভোগ বাড়িয়েছে। দ্রæত খালটি উদ্ধার না হলে মানববন্ধন, বিক্ষোভসহ কঠোর আন্দোলন করা হবে। আমাদের দাবি আদায় করে ছাড়বো।

ইমানের কান্দি গ্রামের আব্দুস সাত্তার বলেন, পুলিশের সোর্স পরিচয়ে দেলোয়ার অপকর্ম করে যাচ্ছে। তার মেয়ের জামাই নাজির হোসেনকে ভূয়া মামলা দিয়ে মামলা শেষ করে দেবে বলে ২০ হাজার টাকা আত্মসাৎ করেছেন।
সনমান্দি ইউনিয়ন পরিষদের ৭নং ওয়ার্ড সদস্য আলমগীর হোসেন বলেন, খাল দখল করে বালু ভরাটের বিষয়টি এলাকাবাসী আমাকে জানিয়েছেন। এ বিষয়টি ইউএনওকে জানানো হয়েছে। তবে খালটি দ্রæত উদ্ধার করা জরুরী।

অভিযুক্ত দেলোয়ার হোসেন বলেন, খালটি মাত্র আট ফুট। আমার জায়গায় বালু ভরাট করে পোল্ট্রি ফার্ম গড়েছি। এতে মানুষের সমস্যা হওয়ার কথা নয়।

সোনারগাঁ উপজেলা সহকারী কমিশনার (ভূমি) সৈয়দা সালেহা নূর বলেন, এখানে নতুন যোগদান করেছি। সরেজমিনে ওই এলাকায় গিয়ে সরকারী খাল দখলের প্রমাণ পেলে ব্যবস্থা নেওয়া হবে।

সোনারগাঁ উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা (ইউএনও) আব্দুল্লাহ আল মাহফুজ বলেন, খাল দখলের বিষয়ে আমাকে কেউ অবগত করেনি। সরকারী সম্পত্তি কাউকে দখল করতে দেওয়া হবে না। তদন্ত করে খাল দখলের প্রমাণ পেলে দখলদারের বিরুদ্ধে আইনগত ব্যবস্থা নেওয়া হবে। জনসাধারনের দূর্ভোগ লাঘবে খাল উদ্ধার করা হবে।

Facebook Comments Box
এই জাতীয় আরও খবর