1. admin@ajkernarayanganj.com : admin :
রবিবার, ১৬ জুন ২০২৪, ০২:৪১ পূর্বাহ্ন
সংবাদ শিরোনাম :
সোনারগাঁয়ে সরকারী খাল বালু ভরাট করে দখলের অভিযোগ সোনারগাঁয়ে ৩২২ জন কৃতি শিক্ষার্থীদের সংবর্ধনা সোনারগাঁয়ে সওজের জায়গা দখল,দোকান ভাড়া দিয়ে আ’লীগ নেতাদের বানিজ্যের অভিযোগ সোনারগাঁয়ে অজ্ঞাত ব্যক্তির লাশ উদ্ধার সোনারগাঁয়ে জাতীয় কবি নজরুল ইসলামের ১২৫ তম জন্মবার্ষিকী পালিত মর্গ্যান গার্লস স্কুল এন্ড কলেজের বার্ষিক ক্রীড়া ও সাংস্কৃতিক পুরস্কার বিতরণ সোনারগাঁয়ে ভূমি সেবা সপ্তাহ শুরু বন্দরে সন্ত্রাসীদের গুলিতে যুবক খুন সোনারগাঁয়ে বাদি ও সাক্ষীকে আটকে রেখে নির্যাতনের ঘটনায় শ্রমিকলীগের প্রতিবাদ ও নিন্দা  জনস্বাস্থ্য সুরক্ষা প্রকল্পের কার্যক্রম চলমান রাখা দাবীতে মানববন্ধন

সোনারগাঁয়ে সওজের জায়গা দখল,দোকান ভাড়া দিয়ে আ’লীগ নেতাদের বানিজ্যের অভিযোগ

আজকের নারায়নগঞ্জ ডেস্ক :
  • প্রকাশের সময় : মঙ্গলবার, ১১ জুন, ২০২৪
  • ১৫২ বার পঠিত

আজকের নারায়ণগঞ্জ ডেস্ক: নারায়ণগঞ্জের সোনারগাঁয়ে সড়ক ও জনপদ বিভাগ (সওজের) জায়গা দখল করে দোকান নির্মাণের অভিযোগ উঠেছে স্থানীয় আওয়ামীলীগ নেতাদের বিরুদ্ধে। ঢাকা-চট্টগ্রাম মহাসড়কের দড়িকান্দি বাস স্ট্যান্ড এলাকায় এ জায়গা দখল বানিজ্যের অভিযোগ উঠে। দড়িকান্দি গ্রামে আওয়ামীলীগ নেতা শাহজাহান মিয়া, মামুন মিয়া ও বাবু ওই জমিতে দোকান ঘর নির্মাণ করে লাখ লাখ টাকা বানিজ্য করছেন বলে অভিযোগ উঠে। সওজের জমি দখল করে স্থাপনা নির্মাণ করে বানিজ্য করায় স্থানীয়দের মধ্যে ক্ষোভের সৃষ্টি হয়েছে।

জানা যায়, উপজেলার সনমান্দি ইউনিয়নের দড়িকান্দি বাস স্ট্যান্ডে মানুষ নিরাপদে রাস্তা পারাপারের জন্য ফুটওভার ব্রীজ নির্মাণ করে নারায়ণগঞ্জ সড়ক ও জনপদ বিভাগ(সওজ)। নির্মাণ কাজ শেষ হওয়ার পর ফুট ওভার ব্রীজের পাশে পরিত্যক্ত জায়গায় স্থানীয় আওয়ামী লীগ নেতা পরিচয়ে দড়িকান্দি গ্রামের শাহজাহান মিয়া, মামুন মিয়া ও বাবু ৮-১০টি দোকানঘর নির্মাণ করে। প্রতিটি দোকান থেকে অগ্রিম ২০ হাজার থেকে ৫০ হাজার টাকা নিয়ে এসব দোকানঘর ভাড়া দিয়েছেন। এসব দোকান থেকে প্রতিমাসে তারা ৫-৭ হাজার করে ভাড়া উত্তোলন করছেন। জায়গা সওজের হলেও ওই জমিতে আওয়ামী লীগের নাম ভাঙ্গিয়ে অবৈধভাবে দোকান নির্মাণ করে আওয়ামী লীগ নেতাদের পকেটে ভারী করছেন। ফুট ওভার ব্রীজের পাশে এসব দোকান পাট গড়ে তোলার কারনে ফুটওভার ব্রীজ দিয়ে পথচারীদের চলাচলের বাধাগ্রস্থ হচ্ছে বলে জানিয়েছেন স্থানীয়রা। দখলদারদের আওয়ামী লীগে কোন পদ পদবি না থাকলেও তারা পুরো ইউনিয়নের দাবড়িয়ে বেড়াচ্ছেন।

সরেজমিন গতকাল সোমবার দড়িকান্দি এলাকায় গিয়ে দেখা যায়, দড়িকান্দি এলাকায় সড়ক ও জনপথ বিভাগের নির্মাণ করা ফুট ওভার ব্রিজের নিচের পূর্বাংশে সওজের জায়গার উপর টিনসেড দোকানঘর নির্মাণ করে বিভিন্ন ধরনের দোকান ভাড়া দেওয়া হয়েছে। ক্ষুদ্র ব্যবসায়ীরা অগ্রীম ও ভাড়া দোকান নিয়ে বিভিন্ন ধরনের মালামাল সাজিয়ে বসেছেন।

নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক দড়িকান্দি এলাকার একাধিক ক্ষুদ্র ব্যবসায়ীরা বলেন, সড়ক জনপদ বিভাগের জায়গাতে শাহজাহানের নেতৃত্বে কয়েকজন দোকানঘর নির্মাণ করে ভাড়া খাচ্ছেন। তারা একটু সরকারী জায়গা পেলেও সেটা দখল করে নেন। এসব দখলদারদের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নেওয়ার জন্য জোর দাবি জানিয়েছেন। ক্ষুদ্র ব্যবসায়ীরা সরকারী জমিতে গড়ে তোলা দোকান ভাড়া দিয়ে তাদের দোকানদারী করতে হচ্ছে।

সূত্র জানায়, আওয়ামী লীগ নেতা শাহজাহান, মামুন মিয়া ও বাবু দোকান ঘর নির্মাণ করে ক্ষুদ্র ব্যবসায়ীদের কাছে এসব দোকানের অগ্রিম বাবদ ক্ষুদ্র ব্যবসায়ী আনিছুর রহমান আনিছের কাছ থেকে ২০হাজার টাকা, মোক্তার হোসেনের কাছ থেকে ৫০ হাজার টাকা, খোকন মিয়ার কাছ থেকে ২০ হাজার টাকা, কামাল মিয়ার কাছ থেকে ২০ হাজার টাকা নিয়েছেন। এভাবে তারা সরকারি জায়গা দখল করে কয়েক লাখ টাকার বানিজ্য করেছেন বলে স্থানীয়দের অভিযোগ।

অভিযুক্ত দখলদার শাহজাহানের সঙ্গে একাধিকবার তার মোবাইল ফোনে যোগাযোগের চেষ্টা করা হলে তাকে পাওয়া যায়নি।

অপর দখলদার বাবু মুঠোফোনে বলেন, স্ট্যান্ডের দোকানগুলো শাহজাহান মিয়া নির্মাণ করেছেন। তাদের দখলে থাকা দোকানের আয় থেকে বাস স্ট্যান্ড মসজিদের খরচ ও ইমামের বেতন দেওয়া হয়। তবে তারা এ জায়গা লিজ নেননি।

সোনারগাঁ থানার পরিদর্শক (তদন্ত) মহসীন মিয়া বলেন, মহাড়কের ২০কিলোমিটার এলাকায় সওজের অবৈধ দখলদারদের উচ্ছেদের জন্য পুলিশের সহযোগিতা চাওয়া হয়েছে। আশা করি দ্রæত এসব অবৈধ স্থাপনা উচ্ছেদ করা হবে।

সোনারগাঁ উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা(ইউএনও) মো: আব্দুল্লাহ আল মাহফুজ বলেন, দখলদাররা যত বড়ই শক্তিশালী হোক না কেন কাউকে ছাড় দেওয়া হবে না। তবে সওজের পক্ষ থেকে উচ্ছেদে সহযোগিতার জন্য চিঠি পেয়েছি। এসব অবৈধ স্থাপনা উচ্ছেদ করা হবে।

নারায়ণগঞ্জ সড়ক ও জনপদ বিভাগ (সওজ) নির্বাহী প্রকৌশলী শাহানা ফেরদৌস বলেন, সওজের জায়গায় গড়ে উঠা এ অবৈধ স্থাপনা দ্রুত উচ্ছেদ করা হবে। কাচঁপুর থেকে মোগরাপাড়া চৌরাস্তা সহ আশপাশের সকল স্থাপনা ঈদুল আযহার পর উচ্ছেদ অভিযান চালানো হবে।

Facebook Comments Box
এই জাতীয় আরও খবর