1. admin@ajkernarayanganj.com : admin :
বুধবার, ১৭ জুলাই ২০২৪, ০১:৫৩ পূর্বাহ্ন
সংবাদ শিরোনাম :

সোনারগাঁয়ে দুই সন্তানের জনকের বিরুদ্ধে প্রতিবন্ধী যুবতীকে ধর্ষণের অভিযোগ

আজকের নারায়নগঞ্জ ডেস্ক :
  • প্রকাশের সময় : বুধবার, ১৯ জুন, ২০২৪
  • ১৬৯ বার পঠিত

আজকের নারায়ণগঞ্জ ডেস্ক: নারায়ণগঞ্জের সোনারগাঁ উপজেলার চরাঞ্চল নুনেরটেক এলাকায় এক প্রতিবন্ধী যুবতীকে (২৭) একাধিকবার ধর্ষণ করে ৫ মাসের অন্তঃসত্ত্বা করার অভিযোগ উঠেছে একই এলাকার দুই সন্তানের জনক কামাল হোসেন (৪০) নামে এক যুবকের বিরুদ্ধে।

ধর্ষক স্থানীয়ভাবে প্রভাবশালী হওয়ায় ধর্ষিতার অসহায় বাবা থানায় লিখিত অভিযোগ না দেওয়ায় কোনো আইনি ব্যবস্থাও নেয়নি পুলিশ।

অভিযুক্ত ধর্ষক কামাল (৪০) উপজেলার বারদী ইউনিয়নের নুনেরটেক এলাকার পশ্চিমপাড়া ডিয়ারা গ্রামের মৃত কাবিল হোসেনের ছেলে। তার দুটি সন্তান রয়েছে।

স্থানীয় ও এলাকাবাসী সূত্রে জানা গেছে, ভুক্তভোগী বুদ্ধি প্রতিবন্ধীর বাবা একজন জেলে। নানির বাড়িতেই সে বড় হয়। বুদ্ধিপ্রতিবন্ধী হওয়ায় পাশের বাড়ির মৃত কাবিল মিয়ার ছেলে কামাল (৪০) গত ৩ বছর পূর্বে একাধিকবার ধর্ষণ করে অন্তঃসত্ত্বা করলে স্থানীয় ব্যক্তিবর্গ বিষয়টি ধামাচাপা দিয়ে উপজেলার স্থানীয় একটি হাসপাতালে গর্ভপাত করায়। এ ঘটনার সুষ্ঠু বিচার না হওয়ায় এ ঘটনার পুনরাবৃত্তি ঘটে। ওই ভুক্তভোগী এখন ৫ মাসের অন্তঃসত্ত্বা।

ভুক্তভোগীর অভিযোগ, তার বাবা ও ভাই রাতে বাসায় না থাকার সুযোগে কামাল বাসায় ঢুকে তাকে একাধিকবার ধর্ষণ করেছে। এর আগে দুইবার অন্তঃসত্ত্বা করেছে। দুইবারই স্থানীয়দের প্রভাবের কারণে অভিযুক্ত কামাল ও তার বউ উপজেলার একটি বেসরকারি হাসপাতালে গর্ভপাত করায়। এবারও তাকে ধর্ষণ করে অন্তঃসত্ত্বা করেছে।

ভুক্তভোগীর ছোট ভাই বলেন, পরিবারের স্বচ্ছলতার জন্য সে এবং তার বাবা রাতে নদীতে মাছ ধরতে যায়। এ সুযোগে পাশের বাড়ির কামাল তার বোনকে ধর্ষণ করে অন্তঃসত্ত্বা করে। কিন্তু স্থানীয়দের প্রভাবের কারণে এবং তাদের হুমকি প্রদান করে গোপনে গর্ভপাত করায়।আবারও এ ঘটনার পুনরাবৃত্তি ঘটিয়ে তার বোনকে এবার ৫ মাসের অন্তঃসত্ত্বা করে সেই ধর্ষণকারী কামাল(৪০)।

তিনি আরও জানান, যেহেতু তারা (ভুক্তভোগী) নানির বাসায় থাকে, সেহেতু স্থানীয়দের প্রভাবের কারণে তারা এলাকায় তার বোনকে নিয়ে মামার বাসায় মানবেতর জীবনযাপন করছে। এ ঘটনায় তারা সুষ্ঠু বিচার দাবি করেছেন

ভুক্তভোগীর ভাবী জানান, মেয়েটি বুদ্ধিপ্রতিবন্ধী ও অসহায় পরিবারের হওয়ায় এলাকার স্থানীয় ব্যক্তিরা তাদের কোনো সহযোগিতা করছে না। তারা ধর্ষণকারী কামালের পক্ষ নিয়ে বিভিন্ন হুমকি ধামকি দিচ্ছে।তারা এখন অসহায় মেয়েটিকে নিয়ে নিরাপত্তাহীনতায় ভুগছেন।

অভিযুক্ত ধর্ষক কামাল বলেন, আমি একজন জেলে। আমার ধর্ষণের বিষয়টি মিথ্যা ও বানোয়াট। আমি এই অনৈতিক কর্মকাণ্ডের সঙ্গে জড়িত নই।

এ ব্যাপারে সোনারগাঁ থানার পরিদর্শক (তদন্ত) মহসিন মিয়া জানান, এ বিষয়ে থানায় এখন পর্যন্ত কোনো অভিযোগ আসেনি। অভিযোগ পেলে তদন্ত করে ব্যবস্থা নেওয়া হবে।

Facebook Comments Box
এই জাতীয় আরও খবর