1. admin@ajkernarayanganj.com : admin :
রবিবার, ১৬ জুন ২০২৪, ০২:৩৩ পূর্বাহ্ন
সংবাদ শিরোনাম :
সোনারগাঁয়ে সরকারী খাল বালু ভরাট করে দখলের অভিযোগ সোনারগাঁয়ে ৩২২ জন কৃতি শিক্ষার্থীদের সংবর্ধনা সোনারগাঁয়ে সওজের জায়গা দখল,দোকান ভাড়া দিয়ে আ’লীগ নেতাদের বানিজ্যের অভিযোগ সোনারগাঁয়ে অজ্ঞাত ব্যক্তির লাশ উদ্ধার সোনারগাঁয়ে জাতীয় কবি নজরুল ইসলামের ১২৫ তম জন্মবার্ষিকী পালিত মর্গ্যান গার্লস স্কুল এন্ড কলেজের বার্ষিক ক্রীড়া ও সাংস্কৃতিক পুরস্কার বিতরণ সোনারগাঁয়ে ভূমি সেবা সপ্তাহ শুরু বন্দরে সন্ত্রাসীদের গুলিতে যুবক খুন সোনারগাঁয়ে বাদি ও সাক্ষীকে আটকে রেখে নির্যাতনের ঘটনায় শ্রমিকলীগের প্রতিবাদ ও নিন্দা  জনস্বাস্থ্য সুরক্ষা প্রকল্পের কার্যক্রম চলমান রাখা দাবীতে মানববন্ধন

সোনারগাঁয়ে কালাম-বাবুলের ভোটের লড়াই। ১২ কেন্দ্র অধিক ঝুকিপূর্ণ, সংঘাতের আশঙ্কা।

আজকের নারায়নগঞ্জ ডেস্ক :
  • প্রকাশের সময় : সোমবার, ২০ মে, ২০২৪
  • ৬২৪ বার পঠিত

আজকের নারায়ণগঞ্জ ডেস্ক:  ৬ষ্ঠ উপজেলা পরিষদ নির্বাচনের দ্বিতীয় ধাপে নারায়ণগঞ্জের সোনারগাঁ উপজেলা পরিষদ নির্বাচনে গতকাল রোববার রাতেই প্রচার প্রচারণা শেষ হয়। শেষ দিনও প্রার্থীদের উৎসবমূখর প্রচারনায় অংশ নিতে দেখা গেছে। তবে নির্বাচনকে ঘিরে দুই চেয়ারম্যান প্রার্থীর সমর্থকদের মধ্যে সংঘাত ও উত্তেজনার আশঙ্কা করছেন ভোটাররা। এতে কেন্দ্রে ভোটার উপস্থিতি কম হওয়ার সম্ভাবনা রয়েছে। তবে প্রশাসন বলছেন সুষ্ঠু ও নিরপেক্ষ ভোট গ্রহনে বদ্ধপরিকর।

সোনারগাঁ উপজেলা নির্বাচন অফিস সূত্রে জানা যায়, উপজেলায় ১৪২টি কেন্দ্রে ৯৬২টি কক্ষে ভোট গ্রহন হবে। মোট ভোটার ৩ লাখ ৫০ হাজার ৬৬৮ জন। এদের মধ্যে পুরুষ ভোটার ১ লাখ ৮১ হাজার ৪১৪ জন এবং নারী ভোটার ১ লাখ ৬৯ হাজার ২৫৪ জন।

জেলা নির্বাচন কার্যালয় সূত্রে জানা যায়, সোনারগাঁ উপজেলা পরিষদ নির্বাচনে চেয়ারম্যান পদে লড়ছেন চারজন। তারা হলেন, উপজেলা আওয়ামীলীগের সাবেক (ভারপ্রাপ্ত) সাধারন সম্পাদক ও উপজেলা আওয়ামীলীগের সদস্য মাহফুজুর রহমান কালাম (ঘোড়া প্রতীক), সদ্য সাবেক উপজেলা পরিষদের ভাইস চেয়ারম্যান ও উপজেলা আওয়ামীলীগের কৃষি ও সমবায় বিষয়ক সম্পাদক বাবুল হোসেন (আনারস প্রতীক), উপজেলা যুবলীগের সভাপতি রফিকুল ইসলাম নান্নু (মটর সাইকেল প্রতীক)ও সাধারন সম্পাদক আলী হায়দার (দোয়াত কলম প্রতীক)। তবে ইতিমধ্যে আলী হায়দার অর্থের বিনিময়ে নির্বাচন সড়ে দাড়িয়েছেন বলে জানান স্থানীয় নেতাকর্মীরা।

উপজেলা ভাইস চেয়ারম্যান পদে প্রতিদ্ব›দ্বীতা করছেন ৬জন। এরা হলেন, মো:আজিজুল ইসলাম (মাইক প্রতীক), মোহাম্মদ মাহাবুব পারভেজ (টিয়া), মাছুম চৌধুরী (তালা প্রতীক), জহিরুল ইসলাম খোকন (উড়োজাহাজ), আবুল ফয়েজ শিপন (চশমা প্রতীক)। এছাড়া বিএনপি থেকে বহিস্কৃত নেতা মো:জাহাঙ্গীর হোসেন ভূইয়া (টিউবওয়েল প্রতীক) নিয়ে লড়ছেন।
এছাড়া সংরক্ষিত নারী ভাইস চেয়ারম্যান পদে প্রার্থী হয়েছেন ৫ জন। উপজেলা আওয়ামীলীগের মহিলা বিষয়ক সম্পাদক কোহিনুর ইসলাম রুমা (সিলিংফ্যান)। উপজেলা আওয়ামীলীগের সদস্য ও সাবেক উপজেলা পরিষদের ভাইস চেয়ারম্যান মাহমুদা আক্তার ফেন্সি তিনি (হাঁস) প্রতীক, উপজেলা আওয়ামীলীগের সদস্য নুরজাহানের প্রতীক (সেলাইমেশিন), উপজেলা মহিলা আওয়ামীলীগের সাংগঠনিক সম্পাদক হেলেনা আক্তার প্রতীক (কলস) এবং উপজেলা মহিলা আওয়ামীলীগের যুগ্ম সম্পাদক ফরিদা পারভীন ফুটবল প্রতীক নিয়ে লড়ছেন।

সোনারগাঁয়ে উপজেলার চার চেয়ারম্যান প্রার্থীর সবাই ক্ষমতাসীন দলের রাজনীতির সাথে জড়িত থাকলেও আওয়ামী লীগের স্থানীয় সংসদ সদস্য আব্দুল্লাহ আল কায়সার (হাসনাত) নিজে সরাসরি কাউকে সমর্থন দিতে দেখা যায়নি। তবে তাঁর অনুসারী নেতা-কর্মীদের আনারস প্রতীকের প্রার্থী বাবুল হোসেনের পক্ষে প্রচারণা চালাচ্ছেন। এতে স্থানীয় আওয়ামী লীগ ও সহযোগী সংগঠনের নেতা-কর্মীদের একটি অংশ নাখোশ।

সাবেক সংসদ সদস্য ও জাতীয় পার্টির প্রেসিডিয়াম সদস্য লিয়াকত হোসেন খোকাও বাবুল হোসেনকে সমর্থন দিয়েছেন। তার অনুসারী নেতা-কর্মীরা এ প্রার্থীর পক্ষে প্রচারণা চালাচ্ছেন। অপর দিকে স্বাধীনতা চিকিৎসক পরিষদের সাবেক সাংগঠনিক সম্পাদক আবু জাফর চৌধুরী, সাবেক সংসদ সদস্য মোবারক হোসেনের ছেলে এরফান হোসেন দ্বীপসহ আওয়ামী লীগের একাংশের সমর্থন পাচ্ছেন মাহফুজুর রহমান কালাম।

তারপর মাহফুজুর রহমান ও বাবুল হোসেনের লোকজন একে অপরকে ঘায়েল করতে পাল্টাপাল্টি বক্তব্য দেওয়াকে কেন্দ্র করে এরই মধ্যে সোনারগাঁ থানায় তিনটি সাধারন ডায়েরী, দুটি মানববন্ধন ও একটি সংবাদ সম্মেলন হয়েছে। তবে গতকাল রবিবার রাতে উপজেলার সনমান্দী ইউনিয়নের বাংলাবাজার এলাকায় ঘোড়ার সমর্থকরা আনারসের সমর্থকদের উপর হামলা চালালোর অভিযোগ পাওয়া গেছে। এ ঘটনায় থানায় লিখিত অভিযোগ দেওয়া হয়েছে।শুধু হামলাই নয় অডিও রেকর্ডে ঘোড়ার সমর্থকরা আনারসের সমর্থকদের কেন্দ্রে আসতে নিষেধ করেন। কেন্দ্রে আসলে দু’চারটা লাশ ফেলে দেওয়ার হুমকি দেয় আনারসের সমর্থকদের।

 

উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা (ইউএনও) ও সহকারী রিটানিং কর্মকর্তা মো: আব্দুল্লাহ আর মাহফুজ বলেন, এবার উপজেলা পরিষদ নির্বাচন অবাধ, সুষ্ঠু ও নিরপেক্ষ করতে সকল ধরনের প্রস্তুতি নেওয়া হয়েছে। উপজেলায় ১১ জন ম্যাজিট্রেট থাকবে, তিন প্লাটুন বিজিবি ও পর্যাপ্ত পরিমান পুলিশ প্রশাসন থাকবে। আশাকরি একটি অবাধ ও সুষ্ঠু নিরপেক্ষ নিবার্চন অনুষ্ঠিত হবে। নির্বাচনে প্রার্থীর কেন্দ্র সহ ১২টি কেন্দ্রকে অধিক ঝুকিঁপূর্ন হিসেবে চিহিৃত করা হয়েছে। এ সকল কেন্দ্রগুলো বিশেষ নজরধারীতে থাকবে।

Facebook Comments Box
এই জাতীয় আরও খবর